‘আমাদের তরুণ বয়সে শেখ মুজিবের নাম উচ্চারণ দোষের ছিল’

প্রকাশিতঃ 12:05 pm | September 10, 2018

তসলিমা নাসরিন :
আমাদের তরুণ বয়সে শেখ মুজিবের নাম উচ্চারণ করা দোষের ছিল। এখন শেখ মুজিব ছাড়া অন্য কারও নাম উচ্চারণ করা দোষের। অসহিষ্ণুতা শাসকদের চরিত্রের অংশ। মানুষ একদিন সহিষ্ণু হবে, সত্যিকার গণতন্ত্রের মুখ একদিন দেখবে মানুষ, এরকম একটি স্বপ্ন-মতো ইচ্ছে ওড়ে মনে। কিন্তু গণতন্ত্রই বা শেষ ভরসা কী করে হবে? মানুষ যতদিন লোভ, হিংসে আর হিংস্রতা থেকে মুক্তি না পাবে, ততদিন লোভী, হিংস্র, হিংসুকদেরই শাসকের ভূমিকায় বার বার দেখবো। মানুষ তো বিচিত্র, কেউ নিঃস্বার্থ, কেউ স্বার্থপর, কেউ উদার, কেউ নিষ্ঠুর। সমাজতন্ত্র আনতে গিয়ে, সবাইকে নিঃস্বার্থ বানাতে গিয়ে কত দেশ মুখ থুবড়ে পড়লো।

মাঝে মাঝে মানুষের জাত নিয়ে এত হতাশ হই যে, কুকুর বেড়াল হাতি ঘোড়া নিয়ে মেতে থাকি। কিন্তু ওই স্বপ্ন-মতো ইচ্ছেটিকে কিছুতেই দূর করতে পারি না। ওটি বড্ড জ্বালাতে থাকে। মানুষেরা মানুষ শব্দটির একটি ইতিবাচক অর্থ দাঁড় করিয়েছে। তাই যখন বলি, ‘মানুষ কবে মানুষ হবে?’ কেউ কেউ নিশ্চয়ই বোঝে মানুষের চরিত্রের হাজারো দোষের কথা বলছি না, বলছি মানুষের দুর্লভ কিছু গুণের কথা। মানুষ কবে চরিত্রের দোষগুলোকে ছুঁড়ে ফেলে দুর্লভ গুণগুলোকে সহজলভ্য করবে!

কে বলেছে চাইলেই কেউ ভালো হতে পারে না, সহিষ্ণু হতে পারে না? তবে ঈশ্বরের ভয়ে, আইনের ভয়ে, সমাজের ভয়ে ভালো হওয়ার চেয়ে ভালো হওয়ার জন্যই ভালো হওয়া ভালো।

অনেককাল ভালো মানুষ খুঁজছি।

*লেখাটি  লেখকের ফেসবুক থেকে নেয়া

Print Friendly, PDF & Email