ইবির মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদে শিক্ষার্থীদের তালা

প্রকাশিতঃ 4:06 pm | September 05, 2018

ইবি প্রতিনিধি, কালের আলো:

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ভর্তি পরীক্ষায় মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের বিভাগ ধর্মতত্ত্ব অনুষদে অন্তর্ভুক্ত করায় মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ অফিসে তালা দিয়েছে আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

প্রতক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় আরবী বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ অফিসে তালা দিয়ে অফিসের সামনে আন্দোলন করে।

মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ ধর্মতত্বের অধীন ‘এ’ ইউনিটে যুক্ত করায় আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা প্রায় আধা-ঘন্টা মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অফিস তালাবন্ধ করে রাখে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, সাহিত্য বিষয়ক অন্যান্য বিভাগের মত আরবী সাহিত্যকেও ‘বি’ ইউনিটের অধীনে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার জোর দাবি জানিয়েছে এবং আরবী সাহিত্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষার পদ্ধতিতে ধর্মত্ত্বের সাথে মিল নেই। তারপরেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কিভাবে এরকম একটি বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নেয়।

মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ অফিস তালাবন্ধ করে রাখার খবর পেয়ে প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবুর ঘটনাস্থলে এসে শিক্ষার্থীদের শান্ত করার চেষ্টা করেন। এসময় অবরোধকারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য প্রক্টর বলেন, তোমাদের দাবি যদি যৌক্তিক হয় তাহলে অবশ্যই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সেই দাবি মেনে নিবে।

জানা গেছে গত সোমবার মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা আরো বলেন, আমরা ন্যায্য দাবি নিয়ে আন্দোলন করছি। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের দাবি মেনে নিচ্ছে না।

অপরদিকে আইন ও শরীয়াহ অনুষদের আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা ধর্মতত্ত্ব অনুষদের সাথে ‘এ’ ইউনিটে অন্তর্ভুক্ত করায় উক্ত বিভাগের শিক্ষার্থীরা ৩ সেপ্টেম্বর থেকে একই দাবিতে আন্দোলন শুরু করে বলে জানান শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, গত ১৪ আগস্ট কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় আল-ফিকহ্ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ ও আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা ধর্মতত্ত্বের অধীনে (‘এ’ ইউনিট) নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষা কমিটি।

কালের আলো/কবির/এএ

Print Friendly, PDF & Email