আ’লীগ ক্ষমতায় এসে বিমানের নিরাপদ সেবা নিশ্চিত করেছে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 5:53 pm | October 01, 2020

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বন্ধ হওয়া বিমানবন্দরগুলো চালু করেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, পাশাপাশি বিমানের নিরাপদ সেবা নিশ্চিত করেছে।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সামনে নির্মিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল, বিমানবন্দরের অভ্যন্তরে বঙ্গবন্ধু কর্নার, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের নবনির্মিত প্রধান কার্যালয় পর্যটন ভবন এবং রাজধানীর গ্রিনরোডে পানি ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সারা বাংলাদেশে যত খাল, বিল, হাওর, পুকুর, নদী যা আছে সবগুলোর যাতে নাব্য থাকে, সেগুলো খনন করা, সেখানে পানি ধারণক্ষমতা বাড়ানো, এসব করতে হবে। তাতে দুটি কাজ হবে। একটা হচ্ছে আমাদের জীববৈচিত্র্য রক্ষা হবে, মৎস্য উৎপাদন বাড়বে এবং প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা হবে। তাতে মানুষের চহিদাটাও আমরা পূরণ করতে পারবো।

জলাধার বাড়ানোর পাশাপাশি মানুষের পানির চাহিদা মেটাতে সরকারের বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যে পানির জন্য এক সময় হাহাকার ছিল সেই হাহাকারটা যেন বন্ধ হয়। আমাদের লক্ষ্য দেশের মানুষকে সুপেয় পানি দিতে হবে।

ভূ-গর্ভস্থ পানির পরিবর্তে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার নিশ্চিতে বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করে সরকারপ্রধান বলেন, আমাদের ভূ-উপরিস্থ পানি ব্যবহার করতে হবে। আমাদের সেচের পানি বা ব্যবহারের পানি যেন ভূ-গর্ভস্থ পানির পরিবর্তে ভূ-উপরিস্থ পানির উৎস থেকে আসে সেদিকে যাতে আমরা বিশেষ দৃষ্টি দেই।

এ সংক্রান্ত গবেষণায় গুরুত্ব দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গবেষণা ছাড়া কোনও কাজেই উৎকর্ষ সম্ভব না।

দেশের প্রতিটি নদী ড্রেজিং করার পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানানোর পাশাপাশি নৌপথগুলো ড্রেজিং করে চালু করতে সরকারের নেওয়া উদ্যোগের কথা এ সময় উল্লেখ করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, নদী ও সাগরের পাড়ে পর্যটনের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে, এই সম্ভাবনা কাজে লাগাতে কাজ করছে সরকার।

তিনি বলেন, ওসসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পাশাপাশি চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানের, যশোর বিমানবন্দরকে উন্নত করা এবং সৈয়দপুর বিমানবন্দরকে আঞ্চলিক মানের করে গড়ে তোলা হবে। কেননা কক্সবাজারের মতো সি-বিচ বিশ্বের কোথাও নেই। ১২০ কিলোমিটার সি বিচ।

শোষিত বঞ্চিত মানুষের অধিকার আদায়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আজীবন সংগ্রামের কথা অনুষ্ঠানে তুলে ধরার পাশাপাশি ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট তাকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করার কথাও প্রধানমন্ত্রী স্মরণ করেন।

তিনি বলেন, এরপর বাংলাদেশে হত্যা, ক্যু, ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু হয়। সংবিধান লঙ্ঘন করে মার্শাল ল জারি করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে সেনা শাসন জারি হয়। আর অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী হয়ে যায়, তারা ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে যত বেশি দৃষ্টি দেয়, দেশের মানুষের উন্নয়নের দিকে তত দৃষ্টি দেয় না।

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা যে ফসল লাগিয়ে গিয়েছিলেন, যে গাছ লাগিয়ে গিয়েছিলেন, সেই ফসলই তারা (হত্যাকারীরা) ভোগ করেছে। কিন্তু এরপর বাংলাদেশ এগোতে পারেনি। বাংলাদেশের অনেক সমস্যা ছিল, সেগুলো কখনো সমাধান হয়নি।

অনুষ্ঠানে গণভবন প্রান্তে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম প্রমুখ।

পানি ভবন মিলনায়তন প্রান্তে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক, উপমন্ত্রী একেএম এনামূল হক শামীম, মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার এবং সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর প্রান্ত থেকে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো.মাহবুব আলী, মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো.মহিবুল হকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রায় ২১শ কোটি টাকা ব্যয়ে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নতুন টার্মিনাল ভবনের নির্মাণ কাজ চলছে। টার্মিনালটি নির্মিত হলে নতুন টার্মিনাল দিয়ে বছরে২০ লাখ যাত্রী চলাচল করতে পারবেন। আধুনিক শৈলী সম্বলিত কাঠামোগত ডিজাইন, অদ্যাধুনিক সুযোগ সুবিধা ও স্থাপনাদি এবং দৃষ্টিনন্দন উপকরণাদি ব্যবহার দেশি-বিদেশি যাত্রীদের মুগ্ধ করবে।

ভবনের স্থাপত্য নকশা যৌথভাবে করছে কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান ইওসিন ও হেরিম। যারা বিশ্বের বহু এয়ারপোর্টের প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল ভবনের স্থাপত্য নির্মাণ করেছে। নতুন টার্মিনাল ভবনের কাজ শেষ হলে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশ তথা সিলেটের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হবে।

কালের আলো/এসবি/এমআরকে

Print Friendly, PDF & Email