ঈদ শুভেচ্ছা জানালেন বশেফমুবিপ্রবির উপাচার্য

প্রকাশিতঃ 9:22 pm | July 31, 2020

বশেফমুবিপ্রবি সংবাদদাতা, কালের আলো:

পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জামালপুরে প্রতিষ্ঠিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ। একই সঙ্গে তিনি সবার অনাবিল সুখ, শান্তি, আনন্দ, সমৃদ্ধি এবং মঙ্গল কামনা করেন।

পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) দেয়া এক শুভেচ্ছা বাণীতে উপাচার্য বলেন, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবার জীবনে মানুষে মানুষের মহামিলন ও মহা আনন্দের একটি দিন। সব ভেদাভেদ ভুলে সবাই এই দিনে সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে মিলিত হয়।

তিনি বলেন, ঈদ-উল-আযহা আমাদের শান্তি, সহমর্মিতা, ত্যাগ ও ভ্রাতৃত্ববোধের শিক্ষা দেয়। পাশাপাশি আত্মদান ও আত্মত্যাগের মানসিকতা সঞ্চারিত করে, আত্মীয়-স্বজন ও পাড়া-প্রতিবেশীর সঙ্গে সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে নেওয়ার মনোভাব ও সহিষ্ণুতার শিক্ষা দেয়। তাই ভবিষ্যতে আমাদের এ ঈদের মর্ম অনুধাবন করে সমাজে শান্তি ও কল্যাণের পথ রচনা করতে আমাদের সংযম ও ত্যাগের মানসিকতায় উজ্জীবিত হতে হবে।

পবিত্র ঈদ-উল-আযহার মর্মবাণী অন্তরে ধারণ করে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে কাজের মাধ্যমে বৈষম্যহীন, সুখী ও সমৃদ্ধ, বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমৃদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে দিনরাত পরিশ্রম করে চলেছেন। আসুন আমরাও নিজ-নিজ অবস্থান থেকে জনকল্যাণমুখী কাজে অংশ নিয়ে বৈষম্যহীন,সুখী, সমৃদ্ধ ও শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশ গড়ে তুলি।

সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ এই পবিত্র দিনে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) উদ্ভূত দুর্যোগময় পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে আমাদের ধৈয্য, সাহস ও শক্তি প্রদানের জন্য মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করেন।

একই সঙ্গে তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের আত্মার মাগফিরাত/শান্তি কামনা করেন এবং তাদের পরিবারের শোকসন্তপ্ত সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও বিস্তার প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা ও সরকার নির্দেশিত পরামর্শ এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ আদায় ও ঈদ উদ্যাপনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যসহ সবার প্রতি অনুরোধ জানান বশেফমুবিপ্রবি উপাচার্য।

কালের আলো/এরআর/বিআরএম

Print Friendly, PDF & Email