পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণে আইএসের দায় স্বীকার

প্রকাশিতঃ 9:01 am | July 30, 2020

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

রাজধানীর পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। যদিও পুলিশের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে জঙ্গিদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

বুধবার(২৯ জুলাই) সকালে বিস্ফোরণের ঘটনায় রাতে আইএস দায় স্বীকার করে। অনলাইনে জঙ্গি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী মার্কিন সাইট ইনটেলিজেন্স গ্রুপ তাদের ওয়েবসাইটে এই তথ্য জানায়।

সাইট ইনটেলিজেন্স গ্রুপের পরিচালক রিটা কাটজ এক টুইট বার্তায় বলেছেন, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় পুলিশের একটি দপ্তরে হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস। ২০১৯ সালের আগস্টের পর রাজধানী ঢাকায় আইএসের এটাই প্রথম হামলা বলে জানিয়েছেন রিটা। তিনি বলেছেন, কোরবানির ঈদের আগে নতুন লড়াইয়ের অংশ হিসেবে ঢাকায় এই হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি করছে আইএস।

সম্প্রতি দেশজুড়ে জঙ্গি সংগঠন বড়ধরনের নাশকতা করতে পারে এমন চিঠি দিয়ে পুলিশের সকল বিভাগকে সর্তক করে সদরদপ্তর। চিঠিতে থানাগুলোতে বাড়তি নিরাপত্তা বাড়াতে বলা হয়।

বুধবার সকালে পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণে পাঁচজন আহত হন। তারা হলেন- পরিদর্শক ইমরান, উপ পরিদর্শক (এসআই) সজিব, পিএসআই অংকুর, পিএসআই রোমিও এবং রিয়াজ। পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তার কারো ‘জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা’ পাওয়া যায়নি। তবে তারা মিরপুরের স্থানীয় সন্ত্রাসী। তাদের বিষয়ে আরও তথ্য পেতে দুপুরে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়। তারা হলেন- রফিকুল ইসলাম, শহীদুল ও মোশারফ।

বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত সিভিলিয়ান রিয়াজের অবস্থা গুরুতর। তার বাম হাতের কব্জি বিস্ফোরণে ক্ষতবিক্ষত হওয়ায় অস্ত্রোপচারের সময় তা কেটে ফেলা হয়েছে।

পুলিশ বলছে, মিরপুর এলাকার একজন রাজনৈতিক নেতাকে খুন করার জন্য কয়েকজনকে ভাড়া করা হয়েছে। এমন খবরে পুলিশ তাদের ধরতে কয়েকদিন নজরদারি চালিয়ে যাচ্ছিল। আজ ভোরে এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও কিছু মালামাল জব্দ করা হয়। সেগুলো থানায় নিয়ে আসা হয় এবং উদ্ধার মালামাল ওসি অপারেশনের কক্ষে রাখা হয়। সেখানে বিস্ফোরক কিছু থাকতে পারে এমন সন্দেহে বিশেষজ্ঞ দলকে তলব করা হলেও তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই সেটি বিস্ফোরিত হয়। ঘটনাস্থলে থানা পুলিশের চারজন সদস্য ও একজন সাধারণ মানুষ আহত হন।

কালের আলো/কেআর/এমএম

Print Friendly, PDF & Email