উপজেলা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন প্রতিমন্ত্রী পলকের শ্যালক

প্রকাশিতঃ 6:27 pm | April 21, 2024

নাটোর প্রতিবেদক, কালের আলো:

নাটোরের সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী লুৎফুল হাবিব রুবেল। তিনি ডাক, টেলি যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের শ্যালক।

রোববার (২১ এপ্রিল) সকালে এ ঘোষণা দেন লুৎফুল হাবিব রুবেল। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দলীয় নেতাদের নির্দেশনার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান তিনি।

এর আগে, শনিবার (২০ এপ্রিল) উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরি সভায় লুৎফুল হাবিবকে চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। একই সঙ্গে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে ‘কেন তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না’— এ বিষয়ে আগামী ২২ এপ্রিলের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়।

লুৎফুল হাবিব রুবেল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলীয় নেতাদের নির্দেশনার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরে দল যা সিদ্ধান্ত নেবে, তাও মাথা পেতে নেব।

গত ১৬ এপ্রিল দেলোয়ার হোসেন পাশাকে অপহরণ এবং মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেন রুবেল বলেন, প্রতিমন্ত্রীর শ্যালক হওয়ায় আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে এমন একটি নাটক সাজানো হয়েছে।

এর আগে, গত ১৬ এপ্রিল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অপর প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন পাশাকে অপহরণ এবং মারধর করে তার গ্রামের বাড়িতে ফেলে রেখে আসা হয়। এ ঘটনায় দেলোয়ার হোসেনের বড় ভাই মজিবর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত ২০ জনকে আসামি করে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার পর পুলিশ সিসিটিভির ফুটেজ পরীক্ষা করে প্রথমে সানোয়ার হোসেন সুমন এবং নাজমুল হোসেন বাবুকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে সানোয়ার হোসেন সুমন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। সেখানে লুৎফুল হাবিব রুবেলের পক্ষে এ অপহরণ ও মারধর করেছেন বলে স্বীকার করেন তিনি।

এ ঘটনার পর গত ১৯ এপ্রিল রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আহত দেলোয়ার হোসেনকে দেখতে যান ডাক তার প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এসময় শ্যালক উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুল হাবিব রুবেলকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন তিনি।

কালের আলো/এমএইচ/এসবি

Print Friendly, PDF & Email