অতিথি সারি পরিদর্শন ও শুভেচ্ছা বিনিময় প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিতঃ 10:10 pm | November 21, 2022

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো:

তিনি বিশ্বনেতা। নিজের নেতৃত্বে দৃঢ়তা, রাজনৈতিক কৌশলে দূরদর্শিতা, সিদ্ধান্তে দৃঢ়চেতা এক ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দামি ব্র্যান্ডের কাপড় পরেন না। প্রসাধনও নেহায়েত সাধারণ। বঙ্গবন্ধুর পর দেশের উন্নয়নের জন্য একমাত্র অদম্য মনোভাব তাঁর। বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বেই উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় গোটা বিশ্বকে চমকে দিচ্ছে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন: যুদ্ধ নয়, শান্তির নীতিতে অটল প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ়তাপূর্ণ ক্যারিশমাটিক কর্মযজ্ঞে মোহিত হন নিন্দুকেরাও। নড়েচড়ে বসতে বাধ্য হয় প্রতিপক্ষরাও। নিরাপত্তার ঘেরাটোপ তাকে জনতার কাতার থেকে বিচ্ছিন্ন করতে পারেনি কখনও। যখনই পারেন মনখুলে তাদের সঙ্গে কথা বলেন। সহাস্যে বুকে টেনে নেন পরম মমতায়।

সশস্ত্র বাহিনী দিবসেও সাধারণে অসাধারণ এক প্রধানমন্ত্রীর দেখাই পেলো অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত বিশিষ্টজনেরা। এদিন সোমবার (২১ নভেম্বর) বিকেলে সেনাকুঞ্জে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভাষণ শেষ করেই অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত দর্শক সারি পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী। বিশিষ্টজনদের সঙ্গে শুভেচ্ছা ও কুশল বিনিময়ে ব্যস্ত সময় কাটান সরকারপ্রধান।

আরও পড়ুন: শান্তিকালীন পদকে ভূষিত সেনাপ্রধান

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব:) তারিক আহমেদ সিদ্দিক, সেনাপ্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম শাহীন ইকবাল, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আবদুল হান্নান ও সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানসহ উর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তারা তাঁর সঙ্গে ছিলেন। লাল গালিচায় হেঁটে প্রধানমন্ত্রী দু’পাশে উপস্থিত আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে সালাম ও কুশল বিনিময় করেন।

চলনে-বলনে আবহমান বাঙালি নারীর প্রতিচ্ছবি প্রধানমন্ত্রীকে পেয়ে সবাই যেন উচ্ছ্বসিত। প্রধানমন্ত্রী শুভেচ্ছা বিনিময় পর্বের দাঁড়ি টানেন তিন বাহিনী প্রধান ও তাদের পত্নীদের সঙ্গে সহাস্যে ফ্রেমবন্দি হয়ে। সেনাপ্রধান জেনারেল ড. এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ও তাঁর জীবনসঙ্গী নূরজাহান আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম শাহীন ইকবাল ও তাঁর স্ত্রী এবং বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আবদুল হান্নান ও তাঁর পত্নী প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অসাধারণ মুহুর্তকে স্মৃতির পাতায় ধরে রাখেন।

কালের আলো/এমবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email