হেলমেট থাকলে ফুল, না থাকলে সতর্ক করছে শেরপুর জেলা পুলিশ

প্রকাশিতঃ 8:13 pm | November 21, 2022

কালের আলো প্রতিনিধি:

রাস্তায় রজনীগন্ধা ফুলের স্টিক ও চকলেট হাতে দাঁড়িয়ে পুলিশ সদস্যরা। মোটরসাইকেলে হেলমেট পরা চালকদের দিচ্ছেন ফুল। আর হেলমেট না পরে ছুটে চলা চালকদের থামিয়ে করা হচ্ছে সতর্কতা।

একের পর এক মোটরসাইকেল থামিয়ে হেলমেট না পরে ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করায় যেমন সতর্ক করা হচ্ছে, তেমনি হেলমেট পরা চালকদের রজনীগন্ধা ও চকলেট দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হচ্ছে। তুলে ধরা হচ্ছে হেলমেট না থাকায় দুর্ঘটনার কুফল।

সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে শেরপুরে পৌর শহরের শাপলা চত্বর মোড়ে জেলা পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যদের এমক কার্যক্রম চালাতে দেখা গেছে।

মোটরসাইকেল চালকদের উদ্দেশ্যে এ সময় পুলিশ সুপার কামরুজ্জামান বিপিএম বলেন, বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত সড়ক দুর্ঘটনায় মানুষ মারা যাচ্ছে এবং ট্রাফিক আইন অমান্য করে যানবাহন চালানো রাষ্ট্রীয় অপরাধ। এসব দুঘটনায় মোটরসাইকেল চালকরা সবচেয়ে বেশি মারা যায়। এক্ষেত্রে মোটরসাইকেল চালকদের অবশ্যই হেলমেট মাথায় দিয়ে গাড়ি চালাতে হবে। এতে দুর্ঘটনার কবল থেকে মোটরসাইকেল চালক সুরক্ষা থাকবে এবং সে বেঁচে থাকলে তার পরিবারটি নিরাপদ থাকবে।

হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চালানো ট্রাফিক আইনে বড় অপরাধ তাই এসব চালকদের তিনি সচেতন করতেই মাঠে নেমেছেন। এসময় কতিপয় মোটরসাইকেল চালকের মাথায় হেলমেট না থাকায় তাদেরকে জরিমানা না করে সর্তক করেন। এছাড়াও চালক ও আরোহীদের হেলমেট পড়া এবং ট্রাফিক আইন মেনে চলার নির্দেশনা দেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) মো. সোহেল মাহমুদ পিপিএম, জেলা গোয়েন্দা শাখা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুশফিকুর রহমান, ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) হিরণ মিয়া, টিআই মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email