কার্যকর প্রশিক্ষণকেই যুদ্ধক্ষেত্রে সাফল্যের চাবিকাঠি মনে করেন সেনাপ্রধান

প্রকাশিতঃ 8:49 pm | November 07, 2022

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো::

বাঙালি জাতির আস্থা ও ঐক্যের প্রতীক বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। মাতৃভূমির সার্বভৌমত্বকে সমুন্নত রাখতে জীবনবাজি রেখেই কাজ করে চলেছেন চৌকস, সুশৃঙ্খল ও দু:সাহসী সেনারা। দেশের সেবায় আত্মনিয়োগ ও আত্মোৎসর্গ করার সংকল্পে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে আরও গর্বের জায়গায় দেখতে চান সেনাপ্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

মহান মুক্তিযুদ্ধের সুমহান চেতনায় একটি আধুনিক, যুগোপযোগী ও শক্তিশালী সেনাবাহিনী গঠনে সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গীকারকে উর্ধ্বে তুলে ধরে প্রশিক্ষণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। সেনাপ্রধান দ্ব্যর্থহীন কন্ঠে বলেছেন, ‘সেনাবাহিনীকে বাঙালি জাতির গর্বের জায়গায় দেখতে যা যা করণীয় তার মধ্যে সবচেয়ে অন্যতম কাজ হলো প্রশিক্ষণে সঠিকভাবে মনোনিবেশ করা। এক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ সহায়ক সবকিছু যুপোযোগী সুন্দর হতে হবে। সে লক্ষে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।’

সোমবার (০৭ নভেম্বর) দুপুরে সাভার সেনানিবাসের শহিদ লেফটেন্যান্ট তৌফিক মাল্টিপারপাস সেডে সেনাবাহিনী পর্যায়ে প্রশিক্ষণ সহায়ক সামগ্রী প্রদর্শনী প্রতিযোগিতার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আর্মি ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিন কমান্ড এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

কার্যকর প্রশিক্ষণই সৈনিকের সর্বোত্তম কল্যাণ এবং যুদ্ধক্ষেত্রে সাফল্যের চাবিকাঠি বলে মনে করেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘প্রশিক্ষণ সহায়ক সামগ্রীর সর্বোত্তম ব্যবহার যুদ্ধে বিজয়কে ত্বরান্বিত করে। এক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ সহায়ক সামগ্রী প্রশিক্ষণে ব্যাপকহারে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।’

আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানায়, প্রতিযোগিতায় ১০ পদাতিক ডিভিশন চ্যাম্পিয়ন এবং ১৯ পদাতিক ডিভিশন রানারআপ হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

এছাড়া প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০টি মেজর ফরমেশন, ০৭টি মাইনর ফরমেশন এবং ২০টি অন্যান্য প্রতিষ্ঠানসহ সর্বমোট ৩৭টি দল অংশগ্রহণ করে।

আইএসপিআর জানিয়েছে, সেনাবাহিনী প্রশিক্ষণ সহায়ক সামগ্রী প্রদর্শন প্রতিযোগিতার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের পরে সেনাপ্রধান সাভার সেনানিবাসে নবনির্মিত পদাতিক গেইট, ডিভিশন মডেল শেড এবং অন্যান্য পদবীর সেনাসদস্যদের সপরিবারে বসবাসের জন্য নবনির্মিত বহুতল ভবনের ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে শুভ উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারওয়ার হাসান, আর্মি ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিন কমান্ডের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) লেফটেন্যান্ট জেনারেল আহমেদ তাবরেজ শামস চৌধুরী, জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) ও এরিয়া কমান্ডার লজিস্টিকস্ এরিয়া মেজর জেনারেল মোঃ জহিরুল ইসলাম এবং নবম পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) ও সাভারের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মোহাম্মদ শাহীনুল হকসহ সাভার সেনানিবাসে কর্মরত ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তা এবং অন্যান্য পদবীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/এমএএএমকে

Print Friendly, PDF & Email