জীবনের ৪৯ শরতে প্রিয়দর্শিনী

প্রকাশিতঃ 10:56 am | November 03, 2022

শোবিজ ডেস্ক, কালের আলো:

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের নন্দিত নায়িকা প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী জীবনের ৪৮ শরৎ পার করে ৪৯-এ পা রেখেছেন। ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ দিয়ে আবির্ভূত হওয়া সেই নায়িকার প্রায় তিন দশকের অভিনয় ইনিংসও বেশ চলছে এখনও। যার যাত্রা শুরু হয়েছিল নব্বই দশকের শুরুর দিকে এক তরুণীর মিষ্টি হাসি আর মায়াবী চাহনিতে। যে চাহনিতে বুঁদ হয়েছিলো বাংলার সিনেমাপ্রেমী। সেই মুগ্ধতার রেশ তিনি ধরে রেখেছেন এখনও এই চিরসবুজ নায়িকা।

আজ বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) তার জন্মদিন। জীবনের ৪৯ শরতে পা রাখলেন পিয়দর্শিনী মৌসুমী।

বরাবরে মতো এবারও জন্মদিনে বিশেষ কিছু নেই জানিয়ে তার স্বামী, চিত্রনায়ক ওমর সানী বলেন, ‘কিচ্ছু নেই! আমি আর আমার ছেলে-মেয়ে আমরা পারিবারিকভাবে কী করবো, সেটা আমাদের মধ্যেই থাক। জাতিকে আর জানাবো না। জাতিকে বহু জানিয়েছি, আর জানিয়ে লাভ নেই।’

তবে তিনি জানান, পারিবারিক আয়োজন ছাড়াও একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন মৌসুমী। বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) বিকালের দিকে নায়িকার ভক্তরা জন্মদিন উপলক্ষে একটি আয়োজন করছে। সেখানে গিয়ে তাদের সঙ্গে কিছুক্ষণ সময় আনন্দ ভাগাভাগি করবেন প্রিয়দর্শিনী।

মৌসুমীর জন্ম ১৯৭৩ সালে খুলনায়। কৈশোরেই তিনি গান এবং অভিনয়ের সঙ্গে নিজেকে জড়ান। তবে রূপালি পর্দায় অভিষেক হয় ১৯৯৩ সালের কালজয়ী সিনেমা ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ দিয়ে। এরপর তাকে অনেক ব্যবসাসফল ছবিতে দেখা গেছে। এর মধ্যে কয়েকটি হলো- ‘অন্তরে অন্তরে’, ‘দোলা’, ‘লুটতরাজ’, ‘ভণ্ড বাবা’, ‘আম্মাজান’, ‘ইতিহাস’, ‘লাল দরিয়া’, ‘মোল্লা বাড়ির বউ’, ‘মেশিনম্যান’, ‘খায়রুন সুন্দরী’, ‘দেবদাস’ ইত্যাদি।

শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে মৌসুমী তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ছয়বার বাচসাস এবং ছয়বার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার পেয়েছেন।

বর্তমানে মৌসুমীর হাতে বেশ কিছু সিনেমা রয়েছে। এর মধ্যে ‘দেশান্তর’ নামের একটি সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে আগামী ১১ নভেম্বর। আশুতোষ সুজন পরিচালিত সিনেমাটিতে তার সঙ্গে আছেন আহমেদ রুবেল। এছাড়া ‘ভাঙন’ নামের একটি ছবিও রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন নির্মিত এ ছবিতে তার বিপরীতে দেখা যাবে ফজলুর রহমান বাবুকে।

এদিকে সানী-মৌসুমী দম্পতির সর্বশেষ ছবি ‘সোনার চর’। গত বছরের শেষ দিকে ছবিটির শুটিং করেছেন জাহিদ হাসান। এতে তারকা দম্পতির সঙ্গে আরও অভিনয় করেছেন জায়েদ খান। ছবিটি মুক্তির অপেক্ষায়।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email