সেনাবাহিনীর এভিয়েশন বেসিক কোর্স-১২’র ব্রেভেট ও সার্টিফিকেট প্রদান করলেন সেনাপ্রধান

প্রকাশিতঃ 6:23 pm | October 31, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

আর্মি এভিয়েশন গ্রুপের অধীনস্থ এভিয়েশন স্কুলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এভিয়েশন বেসিক কোর্স-১২’র নবীন সেনা বৈমানিকদের সার্টিফিকেট প্রদান ও তাদের ফ্লাইং ব্রেভেট পড়িয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

সোমবার (৩১ অক্টোবর) তেজগাঁওস্থ আর্মি এভিয়েশন গ্রুপে অনুষ্ঠিত সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় সেনাবাহিনীর চীফ অব জেনারেল স্টাফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারওয়ার হাসান, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন, নৌবাহিনীর সহকারী নৌ প্রধান রিয়ার এডমিরাল এম মোজাম্মেল হক, বিমান বাহিনী ঘাঁটি বাশারের অধিনায়ক এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ জাহিদুর রহমান এবং গ্রুপ কমান্ডার, আর্মি এভিয়েশন গ্রুপ মেজর জেনারেল আই কে এম মোস্তাহসেনুল বাকীসহ সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ সামরিক ও অসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ‘গতি ও নিপুনতা’ এই মূলমন্ত্রে দীক্ষিত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একমাত্র উড্ডয়ন প্রতিষ্ঠান আর্মি এভিয়েশন গ্রুপ ১৯৮১ সালের ০১ জানুয়ারি তারিখে প্রতিষ্ঠার পর হতে তরুণ সামরিক এবং পুলিশ অফিসারদের উড্ডয়ন প্রশিক্ষণ পরিচালনা করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় সেনা, নৌ ও বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সর্বমোট ১০ জন তরুণ গত ২০২১ সালের ০৪ জুলাই থেকে এভিয়েশন বেসিক কোর্স-১২ এর প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে এখন পর্যন্ত এই প্রতিষ্ঠান সেনা, নৌ ও পুলিশ বাহিনীর অফিসারসহ সর্বমোট ১৩৪ জন অফিসারকে বৈমানিক হিসেবে প্রশিক্ষিত করেছে। তাত্ত্বিক প্রশিক্ষণে প্রত্যেক শিক্ষার্থী যথাযথভাবে উত্তীর্ণ হওয়ার পর সেনাবাহিনীর ০৫ জন প্রশিক্ষণার্থীদের সেসনা-১৫২ এ্যারোবেট বিমানে ৭০ ঘন্টা এবং নৌ ও পুলিশ প্রশিক্ষণার্থীদের ডায়মন্ড ডিএ-৪০এনজি বিমানের মাধ্যমে ৭০ ঘন্টা উড্ডয়ন সমাপনান্তে উক্ত সামরিক মৌলিক বিমান উড্ডয়ন প্রশিক্ষণ সফলভাবে সম্পন্ন করেন।

আইএসপিআর আরও জানায়, কোর্সে সেসনা-১৫২ এ্যারোবেট বিমানের সকল প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ বৈমানিক নির্বাচিত হয়েছেন ক্যাপ্টেন মোঃ আবু তালহা আরেফিন, এএসসি এবং ডায়মন্ড ডিএ-৪০এনজি বিমানের শ্রেষ্ঠ বৈমানিক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন সহকারী পুলিশ কমিশনার মো সারোয়ার হোসাইন।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email