ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজট

প্রকাশিতঃ 4:32 pm | October 02, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

বৃষ্টির পানি জমে থাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে ওই রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা অসহনীয় ভোগান্তিতে পড়েছেন।

রোববার (২ অক্টোবর) সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে টঙ্গী পর্যন্ত সড়কে যানজট দেখা দেওয়ায় বিপাকে পড়েছেন বিভিন্ন গন্তব্যের দিকে রওনা হওয়া সাধারণ মানুষজন।

আব্দুল্লাহপুর থেকে ঢাকামুখী সড়কে উত্তরা, এয়ারপোর্ট, খিলক্ষেত, বিশ্ব রোড, বনানী, কুড়িল প্রগতি সরণিজুড়ে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে গাজীপুরগামী সড়কে বনানী, বিশ্বরোড, খিলক্ষেত, কাওলা, এয়ারপোর্ট, উত্তরা, আব্দুল্লাহপুর ছাড়িয়ে গেছে যানবাহনের দীর্ঘ সারি।

তবে সকাল থেকে শুরু হওয়া জ্যামে থেমে থেমে চলছে গাড়ি। এ পরিস্থিতিতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাসে বসে থেকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে যাত্রীদের।

এ অবস্থায় অনেকে বিরক্ত হয়ে গাড়ি থেকে নেমে হেঁটেই গন্তব্যে যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছেন। তবে কেউ কেউ অভিযোগ করেছেন, রাস্তায় পানি জমে কাঁদা হয়ে যাওয়ায় হেঁটে চলাচল করতেও কষ্ট হচ্ছে।

এ অবস্থায় দুপুর থেকে মোটর বসিয়ে সড়ক থেকে পানি সরানোর উদ্যোগ নেয় ট্রাফিক পুলিশ। এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) নাবিদ কামাল শৈবাল বলেন, ভোরের বৃষ্টিতে উত্তরার সড়কের বেশকিছু এলাকা ডুবে যায়। উন্নয়নমূলক কাজের কারণে সড়কের অনেক জায়গায় খানাখন্দ, গর্ত তৈরি হয়েছে। বৃষ্টির কারণে সেসব গর্তে পানি জমে গাড়ি চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। এর মধ্যে অফিসগামী মানুষ সড়কে অবস্থান নেওয়ায় হ য র ব ল অবস্থা তৈরি হয়।

তিনি বলেন, সড়কের অবস্থা স্বাভাবিক করতে যান চলাচলের উপযোগী করতে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় মোটর বসিয়েছি। আমাদের ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা রাস্তায় গর্তের সামনে অবস্থান নিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করছে। জমে থাকা পানি সেচ দিয়ে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এজন্য বাড়তি চাপ নিতে হচ্ছে ট্রাফিক পুলিশকে।

এদিকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ফেসবুক পেইজ থেকে জানানো হয়েছে, রাজধানীর এয়ারপোর্ট এলাকায় বৃষ্টির পানি জমে সড়কের একাংশে গাড়ি চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। ফলে সড়কের দু’পাশে একলেন ব্যবহার করতে হচ্ছে। ফলে সৃষ্টি হয়েছে গাড়ির দীর্ঘ সারি। এয়ারপোর্ট সড়কে এক লেনে গাড়ি চলাচলের ফলে রাজধানীর এয়ারপোর্ট থেকে টঙ্গী হোসেন মার্কেট এলাকা পর্যন্ত প্রায় দশ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির কারণে গাজীপুরের টঙ্গী-চেরাগআলী এলাকায় সড়কের খানাখন্দগুলো তলিয়ে গেছে। দুর্ঘটনার আশঙ্কায় যানবাহনগুলোকে সাবধানে চলতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশন ট্রাফিক (দক্ষিণ) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, ‘আমরা যানজট নিরসনে কাজ করে যাচ্ছি। ঢাকাতে গাড়ি না ঢুকতে পারলে গাজীপুরে যানজট কমানো সম্ভব হবে না। তবুও আমরা চেষ্টা করছি যেন যাত্রীদের ভোগান্তি কিছুটা হলেও লাঘব করা যায়।’

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email