বন্যাদুর্গতদের জন্য অব্যাহত বিজিবির মানবিক প্রয়াস

প্রকাশিতঃ 9:08 pm | June 21, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

বন্যায় নেমে এসেছে মানবিক বিপর্যয়। স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় বাস্তুচ্যুত হাজার হাজার মানুষ। চারিদিকে বন্যাপীড়িত মানুষের হাহাকার। দুর্দশার চিত্রে অশ্রুসিক্ত সবার দু’নয়ন।

দুর্যোগেই যেহেতু মানবিকতার বড় পরীক্ষা ফলশ্রুতিতে বেদনা মথিত হৃদয়ে দেশের নানা প্রান্তে বানভাসি এসব মানুষের পাশে নিজেদের সর্বোচ্চ প্রয়াস নিয়েই দাঁড়িয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

উদ্ধার তৎপরতা থেকে শুরু করে খাদ্যপণ্য ও চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতের মাধ্যমে নিজেদের উদ্যোগে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরী বিজিবি। তাদের এই মানবিক ভূমিকা বেঁচে থাকার লড়াইয়ে থাকা মানুষজনের এক মুহুর্তের জন্য হলেও মুছে দিচ্ছে বেদনার জল, নিভিয়ে দিচ্ছে ক্ষুধার জ্বালা। জীবনের অদম্য লড়াইয়ে জুগিয়ে যাচ্ছে শক্তি-সাহসও।

জানা যায়, সাম্প্রতিক বন্যা শুরু হওয়ার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সীমান্তবর্তী বন্যাকবলিত অসহায় প্রান্তিক জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে বিজিবি। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ’র নির্দেশনা মোতাবেক সিলেট ও সুনামগঞ্জ ছাড়াও লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, শেরপুর, জামালপুর, নেত্রকোনাসহ বন্যাকবলিত বিভিন্ন স্থানে বিজিবি বন্যার্তদের সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছে সীমান্তরক্ষী এই বাহিনী।

জলযুদ্ধে থাকা মানুষজনকে তাঁরা নানাভাবেই সহযোগিতা করে চলেছেন। মহাপরিচালক নিজেই পুরো বিষয়টি মনিটরিং করছেন। নিজেদের এই মানবিক কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার কথাও বলেছেন।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদর দপ্তর জানিয়েছে, মঙ্গলবার (২১ জুন) বিজিবি’র জকিগঞ্জ ব্যাটালিয়ন (১৯ বিজিবি)-এর তত্বাবধানে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার বন্যাদুর্গত বয়রা খাল এলাকার ৩০০টি অসহায় পরিবারের প্রায় ১ হাজার ২০০ সদস্যের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

একই সঙ্গে জকিগঞ্জ ব্যাটালিয়ন (১৯ বিজিবি)-এর তত্বাবধানে জৈন্তাপুর উপজেলার মাওলানা আব্দুল লতিফ-জুলেখা গার্লস স্কুলে বন্যাদুর্গত ১২০০ জন দুস্থ ও অসহায় জনসাধারণকে বিজিবির একটি চিকিৎসক দল বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করে। এ সময় তাদের হাতে ওষুধও তুলে দেওয়া হয়।

একইভাবে সুনামগঞ্জ ব্যাটালিয়ন (২৮ বিজিবি)-এর তত্বাবধানে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ইব্রাহিমপুর এলাকার বন্যাদুর্গত ১৫০টি অসহায় পরিবারের প্রায় ৬০০ সদস্যকে দেওয়া হয়েছে ত্রাণ সহায়তা। এছাড়া সুনামগঞ্জ ব্যাটালিয়নের তত্বাবধানে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বন্যাদুর্গত মল্লিকপুর এলাকার ২০০ জন মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

বিজিবি’র ময়মনসিংহ সেক্টরের নেত্রকোনা ব্যাটালিয়ন (৩১বিজিবি)-এর তত্বাবধানে খালিয়াজুড়ি উপজেলার বন্যাদুর্গত কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের অসহায় ১৫০টি পরিবার এবং জামালপুর ব্যাটালিয়ন (৩৫ বিজিবি) এর ব্যবস্থাপনায় কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলাধীন সীমান্তবর্তী খাটিয়ামারী ও রতনপুর এলাকায় বন্যাকবলিত অসহায় পানিবন্দি ৩০টি দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email