জায়েদ খান আর রাস্তার ব্যাঙ এক কথা: ওমর সানীর ছেলে

প্রকাশিতঃ 9:01 pm | June 13, 2022

শোবিজ ডেস্ক, কালের আলো:

চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সংসার ভাঙার চেষ্টার অভিযোগ এনেছেন ওমর সানী। তিনি জানিয়েছেন, জায়েদ খান গত চার মাস ধরে তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা আরিফা পরভীন মৌসুমীকে নানা হয়রানি ও বিরক্ত করে আসছে। তার সুখের সংসার ভাঙার জন্য বিভিন্ন কৌশলে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করছে।

তবে মৌসুমীর কণ্ঠে ছিলো ভিন্ন সুর। তিনি বলেন, ‘আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের সম্পর্ক, সেটা খুবই ভালো একটা সম্পর্ক। সেখানে আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। ও অনেক ভালো ছেলে। সে কখনোই আমাকে অসম্মান করেনি।’

স্ত্রীর এমন মন্তব্যে ওমর সানী ফেসবুক লাইভে জানান, ‘মৌসুমী আমার স্ত্রী, আমার সন্তানের মা। তাকে অসম্মান করে আমি একটি কথাও বলব না। সে কি মনে করে জায়েদ খানের পক্ষে কথা বলছে সেটা আমি জানি না। আমার গার্ডিয়ান হিসেবে আমার ছেলে ফারদিন এবং মেয়ে ফাইজা অবশ্যই আপনাদের সবকিছু ক্লিয়ার করবে। আমি চাই না, এই ২৭ বছরে এসে কোনো ধরনের ভুল বোঝাবুঝি (পরিবারের মধ্যে) হোক। আমি আমার ছেলেমেয়ে, স্ত্রীকে নিয়েই থাকতে চাই।’

এ প্রসঙ্গে সানী-মৌসুমী দম্পতির একমাত্র ছেলে ফারদিন এহসান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘শুধু আম্মুকে (মৌসুমী) নয়, উনি (জায়েদ খান) কমবেশি সবাইকে ডিস্টার্ব করেন। আমার আব্বুর সঙ্গেও বেয়াদবি করেছেন। আম্মু ভেবেছিলেন, বিষয়টি খুবই সামান্য, এটা পরিবারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকুক।’

তিনি আরও বলেন, ‘তিনি (জায়েদ খান) আমার ব্যবসারও ক্ষতি করার চেষ্টা করেছেন। আমি বিষয়গুলো জানি, কিন্তু পাবলিকলি সব বলব না। উনাকে নিয়ে চিন্তায় পড়ব এমন না। উনাকে এত গুরুত্বও দিচ্ছি না। জায়েদ খান আর রাস্তার ব্যাঙ এক কথা! তাই উনাকে নিয়ে ভাবছি না।’

বাবা-মার সম্পর্ক প্রসঙ্গে এ তারকাপুত্র জানিয়েছেন, ‘সব ঠিক আছে। আমি আব্বুকেও পাচ্ছি, আম্মুকেও পাচ্ছি। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অনেক বিষয় নিয়েই মনোমালিন্য হয়। আমি বিয়ে করেছি, আমাদেরও হয়। এটা তো স্বাভাবিক। আব্বু-আম্মু দুজনই চাচ্ছেন বিষয়টা যেন দ্রুত সমাধান হয়ে যায়।’

মৌসুমীর জায়েদ খানের পক্ষে কথা বলা প্রসঙ্গে ফারদিন জানান, ‘এটা নিয়ে যেন এত কাদা-ছোড়াছুড়ি না হয়, সেই চিন্তা থেকেই আম্মু কথাগুলো বলেছেন। এক জায়গায় দেখলাম আম্মু নাকি বলেছেন, মিথ্যাচারে জড়াচ্ছেন ওমর সানী। আম্মু যদি কোথাও এমন স্টেটমেন্ট দিয়ে থাকেন তবে আমি বলব, এটা ঠিক না। আম্মু আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি চান নাই পত্রিকায়-টিভিতে এসব নিয়ে আলোচনা বা সংবাদ প্রকাশ হোক।’

কালের আলো/এমএইচ/এসবি

Print Friendly, PDF & Email