মুসলিম ইতিহাস থেকে অনুপ্রেরণা নেওয়ার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

প্রকাশিতঃ 10:24 pm | May 23, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

মুসলিম উম্মাহর গৌরবময় অতীত থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে মানবজাতির আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করার জন্য আইইউটি গ্র্যাজুয়েটদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেছেন, বিশ্বকে জানিয়ে দিন যে, মুসলমানরা এখনও জ্ঞানের মশাল বহন করতে পারে।

সোমবার (২৩ মে) গাজীপুরে ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির (আইইউটি) ৩৪তম সমাবর্তনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি) এর অর্থায়নে পরিচালিত আইইউটি’র মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে ওআইসি সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মানবসম্পদ উন্নয়নে বিশেষ করে প্রকৌশল, প্রযুক্তি এবং কারিগরি শিক্ষার ক্ষেত্রে অবদান রাখা।

ড. মোমেন ইসলামের গৌরবোজ্জ্বল দিনগুলোর কথা স্মরণ করে বলেন, ইসলামী স্বর্ণযুগে বিজ্ঞান, শিল্প ও সাহিত্যে মুসলিম পন্ডিতের উল্লেখযোগ্য অবদান আধুনিক সভ্যতার পথ প্রশস্ত করেছে।

কিছু পশ্চিমা মিডিয়া প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, আমরা সন্ত্রাসবাদী ও ধর্মান্ধ নই যেভাবে মিডিয়ার মাধ্যমে ইসলামফোবিয়ার ঢেউ সম্প্রতি আমাদেরকে চিত্রিত করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বর্তমান পক্ষপাতদুষ্ট এবং সংকীর্ণভাবে তুলে ধরার প্রয়াস’ থেকে ভিন্ন এবং বস্তুনিষ্ঠভাবে খ্যাতিসম্পন্ন একটি আন্তর্জাতিক মিডিয়া তৈরি করার জন্য মুসলিম উম্মাহর নতুন প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানান।

ড. মোমেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন, যার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ ১৯৭৪ সালে ওআইসিতে যোগদান করে।

তিনি করোনভাইরাস মহামারী সত্ত্বেও তাদের শিক্ষাবর্ষ সফলভাবে সমাপ্ত করার জন্য আইইউটি কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানান এবং ওআইটি’র জন্য বাংলাদেশ সরকারের অব্যাহত সহযোগিতা ও সহায়তার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টরেট শিক্ষার্থীদের হাতে সার্টিফিকেট এবং নিজ নিজ ক্ষেত্রে দক্ষতা অর্জনকারী শিক্ষার্থীদের ওআইসি ও আইইউটি স্বর্ণপদক তুলে দেন।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী ড. মুহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক, আইইউটির ভাইস-চ্যান্সেলর, ওআইসি মহাসচিবের কার্যালয়ের সফররত প্রতিনিধি দল, কূটনৈতিক কোরের সদস্য এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email