দুর্বোধ্য স্বপ্নময় স্বপ্নের বাস্তবায়ন, ফুরফুরে মেজাজে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 12:08 am | March 21, 2022

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো:

মাথার ওপর নীল আকাশ। মুগ্ধ নয়নে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এমপি তাকিয়ে সর্বাধুনিক আলট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল প্রযুক্তির কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রটির দিকে।নজরকাড়া এক দৃশ্য। প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তির সম্মিলিত যোগফলই না কী আনন্দের বহি:প্রকাশ ঘটায়।

আরও পড়ুনঃ অন্ধকার তাড়িয়ে শতভাগ বিদ্যুতের আলোয় দেশ

আদতে হয়েছেও তাই। দুর্বোধ্য স্বপ্নময় স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের জীবনে সূত্রপাত করেছেন স্বপ্নিল জীবনের। পাল্টে দিতে চেয়েছেন জীবনবোধ এবং জীবনমানের। পুরো ঘটনাপ্রবাহে প্রতিমন্ত্রী বিপুর উপস্থিতি ছিল অনিবার্য। সম্মুখে নেতৃত্ব দিয়ে উজ্জীবনের আলো-বাতাসে ভরিয়ে দিয়েছেন। জানান দিয়েছেন একেকটা ক্ষণ হিরণ্ময়, স্বপ্ন বাস্তব।

আর মাত্র কয়েকঘন্টা পরেই পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন দেশের দেশের সবচেয়ে বড় ও সর্বাধুনিক প্রযুক্তির পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। স্বপ্নপূরণে সাক্ষীও হয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এমপি।

স্বভাবতই উচ্ছ্বাস আনন্দের বাতাবরণেই নিজেকে মেলে ধরেছেন বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর ‘রানিংমেট’ এই প্রতিমন্ত্রী। রয়েছেন পুরোপুরি ফুরফুরে মেজাজে, প্রাণবন্ত হয়েই। সেই ইঙ্গিত দিয়েছেন রবিবার (২০ মার্চ) নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে।

এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন দেশের দেশের সবচেয়ে বড় ও সর্বাধুনিক প্রযুক্তির পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র’র কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন।বর্ণিল স্বপ্নপূরণের বার্তায় প্রতিমন্ত্রী লিখেছেন- ‘স্বপ্নের পূর্ণতা পাচ্ছে দেশের ইতিহাসে কার্যক্রম শুরু করা সর্ববৃহৎ মেগা প্রকল্প পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট আল্ট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল পাওয়ার প্ল্যান্ট। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অপেক্ষায়।’

পায়রায় কয়লাচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্রটি চালুর মধ্য দিয়ে ২০২০ সালেই বাংলাদেশ আলট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল ক্লাবে প্রবেশ করে। আলট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে এমন বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে বাংলাদেশ বিশ্বের ১৩তম দেশ। এশিয়ায় সপ্তম ও দক্ষিণ এশিয়াতে বাংলাদেশ ছাড়া শুধু ভারতে এ ধরনের একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র রয়েছে।

আজ সোমবার (২১ মার্চ) দক্ষিণ এশিয়ায় নতুন এক বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চতায় উপস্থাপনের ক্ষণ হিসেবেও পরিগণিত হবে নি:সন্দেহে। এদিনই দেশে শতভাগ বিদ্যুতায়নের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ঐতিহাসিক এক মাইলফলক অর্জনেও গত কয়েকটি বছর দিন-রাত একাকার করেই খেটেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নপূরণ করেছেন। স্বপ্নের সুরভি ছড়িয়ে দিয়েছেন বিশ্ব পরিমন্ডলে। স্বাধীনতার মাসে এনে দিয়েছেন অনাবিল এক আনন্দ।

প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে কলাপাড়ার ধানখালীর পায়রাতে নির্মিত সর্বাধুনিক আলট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল প্রযুক্তির কয়লাভিত্তিক এই তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রটির শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি অবলোকন করে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু।

রোববার (২০ মার্চ) বিকেলে পায়রা তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র পরিদর্শনকালে তিনি বলেছেন, ‘সময়ের আগে কাজ শেষ হয়ে গেছে। করোনা বাস্তবতার কারণে প্রধানমন্ত্রী এখন উদ্বোধন করছেন। শতভাগ বিদ্যুতায়ন ঘোষণা করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী মুজিববর্ষে সবাইকে বিদ্যুৎ দিতে চেয়েছিলেন, আমরা দিয়ে ফেলেছি।’

কালের আলো/বিএসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email