করোনা নিয়ে ‘অডিও গুজব’র হোতা ডা. আদনান আটক

প্রকাশিতঃ 11:09 pm | March 21, 2020

কালের আলো প্রতিবেদক:

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে ৩৫ সেকেন্ডের গুজব ছড়ানোর হোতা এক চিকিৎসককে আটক করেছে পুলিশ। ডা. ইফতেখার মোহাম্মদ আদনান নামে ওই চিকিৎসক চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক বলে জানিয়েছে পুলিশ। শনিবার (২১ মার্চ) বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর প্রবর্তক মোড় থেকে তাকে আটক করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ডা. ইফতেখার আদনান নগরীর দুই নম্বর গেইট মেয়র গলির বাসিন্দা। তিনি ইউএসটিসি মেডিকেল থেকে এমবিবিএস পাশ করে আবুল খায়ের গ্রুপ মেডিকেল সেন্টারে কর্মরত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ইফতেখার আদনান চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক বলে নিশ্চিত করেছেন মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তি।

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভূঁইয়া বলেন, ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে বলে একটি ভুয়া তথ্য অডিও বার্তার মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ম্যাসেঞ্জারে ছড়িয়ে দেন ইফতেখার। সেটি জনমনে ব্যাপক প্রভাব ফেলে এবং মানুষ আতঙ্কিত হয়ে ওঠে। গুজব ছড়ানোর দায়ে ইফতেখারকে শনাক্ত করে আমরা আটক করেছি।’

পুলিশ আরো জানিয়েছে, আটক আদনান দাবি করেছে, তার এক স্বজনকে ফোন করেই এটা নিয়ে সতর্ক করেছিল। কিন্তু পুলিশের অনুসন্ধানে বের হয়েছে ইচ্ছাকৃতভাবে ভয়েজ রেকর্ড করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) শ্যামল কুমার নাথ জানান, করোনার কারনে বাংলাদেশে অনেক মানুষের মৃত্যু হয়েছে এবং সরকার সেই তথ্য গোপন করছে উল্লেখ করে একটি অডিও ক্লিপ তৈরি করেন ডা. ইফতেখার আদনান। জনমনে ভীতি তৈরি করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার উদ্দেশ্যে ইফতেখার আদনান এ অডিও ক্লিপ তৈরি করেন।

সিএমপির উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক জানান, সম্প্রতি ফেসবুক মেসেঞ্জারে একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়। অডিওতে রোহান নামে একজনকে উদ্দেশ্য করে ইফতেখার আদনান কিছু মিথ্যা তথ্য দেন। করোনার কারনে বাংলাদেশে অনেক লোক মারা গেছে এবং এসব তথ্য সরকার গোপন করছে বলে মিথ্যা তথ্য দেন। তদন্তে নেমে পুলিশ আদনানকে শনাক্ত করে।

তিনি জানান, ইফতেখার আদনান পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন অডিওটি তিনি তৈরি করেছেন। ইফতেখার আদনানকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সকাল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ৩৫ সেকেন্ডের একটি অডিও ভাইরাল হয়। যেখানে টেলিফোনে রোহান নামে একজনকে সতর্ক করা হচ্ছিল। ওই অডিওতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কয়েকদিনে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৮ থেকে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

অবশ্য চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এ বক্তব্যের কোনো ভিত্তি পাননি। এরপরই আইন শৃঙ্খলা বাহিনী গুজব সৃষ্টিকারীর সন্ধানে নামে। প্রথমে তারা গুজব সৃষ্টিকারী ওই ব্যক্তিকে শনাক্ত করে। পরে অভিযান চালিয়ে নগরীর প্রবর্তক মোড় থেকে তাকে আটক করা হয়।

কালের আলো/বিএমএ

Print Friendly, PDF & Email