আদালতের আদেশে সন্তানের অভিভাবক বাঁধন

প্রকাশিতঃ 2:20 pm | April 30, 2018

শোবিজ প্রতিবেদক, কালের আলো:

একমাত্র সন্তান সায়রার সম্পূর্ণ ‘গার্ডিয়ানশিপ’ পেয়েছেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। ৩০ এপ্রিল, সোমবার ঢাকার পারিবারিক আদালত-১২ এই আদেশ দেন। শুধু বাংলাদেশে নয়, এই আদেশ উপমহাদেশ এটি বিরল উদাহরণ বলে মন্তব্য করেছেন বাঁধনের আইনজীবী দিলরুবা শরমিন।

আদেশ অনুযায়ী কন্যা সন্তান সায়রার অভিভাবক হচ্ছেন মা আজমেরী হক বাঁধন। এখন থেকে মায়ের জিম্মাতেই থাকবে মেয়ে। বাবা মাসে কেবল দুই দিন মায়ের বাড়িতে গিয়ে মায়ের উপস্থিতিতে মেয়েকে দেখে আসতে পাড়বেন। কিন্তু কন্যার মঙ্গলের জন্য মায়ের সিদ্ধান্তই হবে চূড়ান্ত।

বাঁধন জানান, সায়রার বাবা মেয়ের পাসপোর্ট আটকে রেখেছেন। যদি বাবা সেটা ফেরত না দেন, তাহলে বাদিকে থানায় জি.ডি (সাধারণ ডায়েরি) করার পরামর্শ দিয়েছেন আদালত। তারপর নতুন পাসপোর্ট দেবার জন্য পাসপোর্ট অফিসে আদালতের পক্ষ থেকে চিঠি ও আদেশ পাঠিয়ে দেয়া হবে জানান বাঁধনের আইনজীবী।

মেয়ের অভিভাবকত্ব পাওয়ার পর বাঁধন বলেন, ‘একটি বিশেষ দিক উল্লেখ না করলেই নয়। সামান্য ৫ লাখ টাকা দেনমোহরের দাবি আমি করিনি। কন্যার ভরণ-পোষণ তার বাবা এতদিন দেননি, আমি চাইওনি। বাবা’র কাছ থেকে ভরণ-পোষণ প্রতিটা মেয়ের অধিকার, মেয়ের দেখভাল করা প্রতিটি বাবারই দ্বায়িত্ব। সেই কাজটা এতদিন আমিই করে এসেছি। সায়রার বাবা ভবিষ্যতে করবেন কিনা, সেটা তার বিবেচনাতেই থাক। আমার জীবনের এই অংশটায় যারা যারা সমর্থন করেছেন, তাদের প্রত্যেককে আমার কৃতজ্ঞতা।’

উল্লেখ্য ২০১৪ সালের ২৬ নভেম্বর বিয়ে বিচ্ছেদ হয় অভিনেত্রী বাঁধন ও ব্যবসায়ী মাশরুর সিদ্দিকী দম্পতির। তাদের একমাত্র কন্যা সন্তান সায়রা। এর আগে ২০১০ সালের ৮ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করেই বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন মাশরুর সিদ্দিকী ও বাঁধন।

কালের আলো/একে/ওএইচ

Print Friendly, PDF & Email