জয় দিয়ে বিপিএল শুরু চট্টগ্রামের

প্রকাশিতঃ 5:52 pm | December 11, 2019

স্পোর্টস ডেস্ক, কালের আলো:

ব্যাট হাতে সিলেট থান্ডারকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন মোহাম্মদ মিঠুন। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে খেলেন ৮৪ রানের দারুণ ইনিংস। মিঠুনের সঙ্গে ব্যাট হাতে মোটামুটি সফল ছিলেন জনসন চার্লস ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতও। কিন্তু বল হাতে চট্টগ্রামের ব্যাটসম্যানদের থামাতে পারেননি বোলাররা। ফলে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চ্যালেঞ্জার্সের কাছে হারল সিলেট।

বুধবার(১১ ডিসেম্বর) বিপিএলের প্রথম ম্যাচে সিলেট থান্ডারকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। আগামীকাল বৃহস্পতিবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে খুলনা টাইগার্সের মুখোমুখি হবে চট্টগ্রাম। তার পরের দিন রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে লড়বে সিলেট থান্ডার।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটিতে টস জিতে সিলেট থান্ডারকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় সিলেট। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে রুবেল হোসেনের বলে উইকেটকিপারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন রনি তালুকদার (৫)। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে ঝড় তোলেন জনসন sচার্লস। ঝড় তোলা চার্লসকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন নাসিম আহমেদ। ফেরার আগে ২৩ বলে সাত বাউন্ডারিতে ৩৫ রান করেন চার্লস।

অবশ্য দুই সতীর্থকে হারিয়েও থমকে যাননি মিঠুন। দলের রানের চাকা সচল রেখে ৩০ বলে পাঁচ ছক্কায় স্পর্শ করেন চলতি বিপিএলের প্রথম হাফসেঞ্চুরি। মাঝে ব্যাট করতে নেমে ৪ রানে সাজঘরে ফেরেন জীবন মেন্ডিস।

কিন্তু অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেনকে নিয়ে দলকে নিরাপদ লড়াইয়ের স্কোর এনে দেন মিঠুন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভারে ৪ উইকেটে ১৬২ রান সংগ্রহ করে সিলেট থান্ডার। ৪৮ বলে ৮৪ রানে অপরাজিত ছিলেন মিঠুন। প্রথম ৩০ বলে পঞ্চাশ পার করা মিঠুন পরের ১৮ বলে করেন ৩১ রান। ৩৫ বলে ২৯ রান করেন সৈকত।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে বল হাতে সমান একটি করে উইকেট নেন রায়াদ এমরিত, নাসিম আহমেদ। দুটি উইকেট নেন রুবেল হোসেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত হচ্ছে এবারের বিপিএলে। দুদিন আগে জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেদিন দেশ-বিদেশের তারকারা মাতিয়েছেন শেরেবাংলার মঞ্চ। ছিলেন সালমান খান-ক্যাটরিনা কাইফদের মতো বলিউড তারকারা। উদ্বোধনের দুদিন পর এবার মাঠে গড়াতে যাচ্ছে ব্যাটে-বলের মূল লড়াই।

একাদশ :
চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স : রায়াদ এমরিত, আভিস্কা ফার্নান্দো, জুনায়েদ সিদ্দিকী, ইমরুল কায়েস, নাসির হোসাইন, রায়ান বার্ল, নুরুল হাসান সোহান, চ্যাডউইক ওয়ালটন, রুবেল হোসাইন, নাসুম আহমেদ ও মুক্তার আলী।

সিলেট থান্ডার : মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ মিঠুন, রনি তালুকদার, রুবেল মিয়া, সোহাগ গাজী, নাজমুল ইসলাম অপু, আন্দ্রে ফ্লেচার, ক্রিশ্মার, জনসন চার্লস, জীবন মেন্ডিস ও নাভিনউল হক।

কালের আলো/এনবিএ/এমএম

Print Friendly, PDF & Email