নিজেদের সেরাটা খেলতে হবে : মাশরাফি

প্রকাশিতঃ 11:40 am | June 20, 2019

স্পোর্টস ডেস্ক, কালের আলো:

বিশ্বকাপের রাউন্ড রবিন লিগের মাঝপথে অস্ট্রেলিয়ার মতো দলের মোকাবিলা করতে হবে। আগের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সহজেই হারালেও এই ম্যাচটি মোটেও সহজ হবে না সেতো জানা কথা। দুই দলের পার্থক্যটা এক্ষেত্রে ভেবে দেখতে হবে। অস্ট্রেলিয়া অন্যতম ফেভারিট। তাই টাইগার দলপতি মাশরাফির মতে, অজিদের হারাতে হলে তাদের চেয়ে কমপক্ষে ৩০ ভাগ বেশি ভালো খেলতে হবে।

বুধবার (১৯ জুন) অস্ট্রেলিয়া ম্যাচকে সামনে রেখে ট্রেন্ট ব্রিজের সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ার শক্তিমত্তা নিয়ে বলতে গিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘ওরা অনেক বেশি প্রফেশনাল। অস্ট্রেলিয়া যদি ৭০ শতাংশ খেলে, আমাদের শতভাগ খেললে সমান হবে। অর্থাৎ, ওদের চেয়ে আমাদের ৩০-৪০ ভাগ বেশি ভালো খেলতে হবে।’

আগের ম্যাচেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৭ উইকেটে জয় তাও ৫১ বল বাকি থাকতেই। অমন দুর্দান্ত জয় এই ম্যাচে কোনো প্রভাব ফেলবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফির উত্তর, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচে যা হয়েছে, তা সামনের ম্যাচে কোনো কাজেই আসবে না। তাই অযথা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সামনে আনার কোনো দরকার নেই। আর বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া সবসময়ই ফেভারিট দল। বিশেষ করে ১৯৯৬ বিশ্বকাপ থেকেই তারা বিশেষ কিছু করে দেখাচ্ছে।’

‘আমার কাছে মনে অন্যতম সেরা দলের সঙ্গে কাল খেলা। ফলে আমাদের সেরা খেলাটা খেলা ছাড়া অন্য কোনো অপশন নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে যা হয়েছে, এবারের দৃশ্যপট পুরো উল্টো। ওদের (অস্ট্রেলিয়া) বোলিংয়ে অনেক বৈচিত্র আছে, যা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে ছিল না। ওদের ব্যাটিংও শক্তিশালী। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেমন পরিস্থিতি পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া তেমন সুযোগ পেলে ৩৫০ রান করবে। তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেসব সুযোগ পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া একই সুযোগ পেলে ফলাফল পাল্টে যেতে পারে।’

অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে বাংলাদেশ তিন বিভাগেই পিছিয়ে আছে। এই পার্থক্য ঘোচাতে মাশরাফির দাওয়াই ছোট ছোট জিনিসগুলোর দিকে নজর রাখা ‘ক্রিকেটে অ্যাথলিক্সের একটা ব্যাপার থাকে। তাই ওদের সঙ্গে আমাদের একটা তফাৎ থাকেই। যেমন, ফিল্ডিং। ফলে ওই জায়গাগুলো থেকে আমাদের মানসিক এবং শারীরিক দু’ভাবেই শক্ত থেকে এগুলো কাভার করা যায় কিনা। এইসব ছোট ছোট জিনিসগুলো ম্যাচ জিতিয়ে দেয়। তাই আমাদেরকে তিন বিভাগেই এগিয়ে থাকতে হবে।’

এই বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ৪ ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে গেছে। আরও কয়েক ম্যাচে হানা দিয়েছে বৃষ্টি। ফলে ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমিয়ে আনতে হয়েছে, যা ম্যাচের ফলও পাল্টে দিয়েছে। এমন ঘটনার শিকার হয়েছে বাংলাদেশও। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে বৃষ্টির কারণেই পয়েন্ট ভাগ করতে হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এমন কিছু হলে তা যে খুব একটা কাজে লাগবে বলেই মাশরাফির মত, ‘এখন যে পরিস্থিতিতে আছি আমার মনে হয়না ১ পয়েন্টে খুব একটা লাভ হবে। পয়েন্ট টেবিলে এখন ৩-৪টা দল আছে যারা অনেক এগিয়ে গেছে। ২ পয়েন্ট এখানে অনেক বড় পার্থক্য। আবার রান রেটের ব্যাপার আছে। আমরা চাই খেলাটা হোক এবং আমরা আমাদের সেরা খেলাটাই খেলি। ইতিবাচকভাবে চিন্তা করলে এটাই হওয়া উচিত।’

তবে একান্তই বৃষ্টি যদি হানা দেয়, তাহলেও তা যেন ভালোর জন্যই হয়। অর্থাৎ ভাগ্যের ছোঁয়া চাইছেন মাশরাফি, ‘আমি সবসময় বলি ভাগ্যের কথা। তাই কাল যদি বৃষ্টি হয় আর আমরা ১ পয়েন্টও পাই তা যেন কাজে লাগে এটাই চাই। আবার খেলা হলেও যেন ভাগ্যটা আমাদের দিকেই আসে। যেটাই হোক, তা আল্লাহ্‌ জানেন। কিন্তু আমি চাইবো যেন ফলটা আমাদের পক্ষেই আসে। খেললেও যেন আমরা ভালো খেলি আর যদি দুর্ভাগ্যজনকভাবে খেলা না হয় তাহলেও যেন সেটা আমাদের ভালোর জন্যই হয়। আমি এটাই বলব আমরা ম্যাচটা যেন ভালো খেলি এবং ম্যাচটা জিতে ২ পয়েন্ট পাই। সেটা আমাদের দলের জন্য আলাদা আনন্দ বয়ে আনবে।’

কালের আলো/পিও/ডিএ

Print Friendly, PDF & Email